ফেসবুক থেকে টাকা আয়!

No Comments

অনেকেই প্রশ্ন করেন ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায় কীভাবে? আবার কেউ কেউ জানতে চান, মোবাইলে টাকা আয় করার উপায় কী? এতদিন এই প্রশ্নের সরাসরি ও সহজ উত্তর ছিলনা। কিন্তু সম্প্রতি ফেসবুক একটি অ্যাপ চালু করেছে যেটা ব্যবহার করে মোবাইলেই অর্থ উপার্জন করা যাবে।

ফেসবুকের নতুন এই অ্যাপটির নাম হচ্ছে স্টাডি। এটি পড়াশোনা সংক্রান্ত কোনো অ্যাপ নয়। স্টাডি হচ্ছে ফেসবুকের গবেষণামূলক একটি প্রজেক্ট যা ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে বিভিন্ন তথ্য নেয়ার বিনিময়ে টাকা দেবে। এই অ্যাপটি ব্যবহারকারীরা মোবাইলে ডাউনলোড ও ইনস্টল করলে কোম্পানিটি টাকা দেবে।

এই অ্যাপ ব্যবহারকারীরা ফোনে ইন্সটল করে ফেসবুককে বিভিন্ন প্রকার তথ্য দিবেন। আর এর জন্য ফেসবুক টাকা দিবে।

অবাক হচ্ছেন? তাহলে ব্যাপারটা আরো বিস্তারিত বলছি। ফেসবুকের এই স্টাডি অ্যাপটি মূলত আপনার ফোনে ইন্সটল করে আপনার স্মার্টফোন ও বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহারের ধরন সম্পর্কে তথ্য নিবে। আর সেই তথ্য ব্যবহার করে ফেসবুকের আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাপ ও প্রযুক্তি বাজার সম্পর্কে ধারণা পাবে। এতে তারা তাদের ব্যবসাকে কোনদিকে নিয়ে গেলে সুবিধা হবে, গ্রাহকদের চাহিদা ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করে বাজারে নতুন প্রোডাক্ট আনতে পারবে। ফলে তাদের আয়ও বাড়বে।

তাই এই অ্যাপ ইন্সটল করিয়ে আপনার কাছ থেকে তথ্য নিতে আপনাকে তারা টাকাও দিতে পারছে। তাদের ঘোষণা করা পলিসি অনুযায়ী এটা অনেকটা “উইন-উইন সিচুয়েশন” এর মতো।

ফেসবুকের এই নতুন স্টাডি অ্যাপ এর ঘোষণা মাত্র এলেও এই কনসেপ্ট নিয়ে অন্য একটি প্রোগ্রাম এর আগেও নিয়ে এসেছিল। সেখানে তারা ইউসেজ ডেটার বিনিময়ে টিনএজারদেরকে টাকা দিত। তবে কিছু সমালোচনা ও কারিগরি জটিলতার জন্য এবছরের শুরুতে সেই প্রোগ্রাম বন্ধ করে দেয় তারা।

নতুন স্টাডি অ্যাপকে সেটারই পূনর্জীবন বলা যায়। তবে তথ্যের বিনিময়ে অর্থের কনসেপ্ট কিন্তু নতুন নয়। এমাজনের কোম্পানি সার্ভেমাঙ্কি তাদের সার্ভেতে অংশগ্রহণ করে গিফট কার্ড কিংবা ক্রেডিট অর্জন করার সুবিধা দিচ্ছে।

ফেসবুক থেকে আয় এর জন্য স্টাডি অ্যাপে আপনাকে কোনো কাজ করতে হবে না। শুধু অ্যাপটি ইন্সটল করে কিছু পারমিশন দিয়ে দিলেই আপনার কাজ শেষ।




অ্যাপটি আপনার ফোনে ইন্সটল করলে তা নিম্নলিখিত ডেটা কালেক্ট করবে-

  • আপনার ফোনে কোন কোন অ্যাপ ইন্সটল করা আছে
  • আপনি কোন অ্যাপে কেমন সময় কাটান
  • আপনার দেশ, ডিভাইস এবং নেটওয়ার্ক এর ধরন
  • অ্যাপ এর এক্টিভিটি নেইম, যার মাধ্যমে অ্যাপে কোন ফিচারগুলো ব্যবহার করছেন তা জানা যায়

তবে ফেসবুক খুব স্পষ্টভাবেই বলে দিয়েছে যে তারা আপনার ফোন থেকে আপনার ইউজার আইডি, পাসওয়ার্ড, ফটো, ভিডিও কিংবা কোন ধরনের ডকুমেন্ট কালেক্ট করবেনা। সেই সাথে অ্যাপে বিভিন্ন পারমিশন সেট করা কিংবা রিমুভ করার অপশনও থাকবে। তাদের মতে অ্যাপটি গ্রাহকদের নিয়ন্ত্রণেই থাকছে।

আপাতত অ্যাপটি শুধু এন্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য পাওয়া যাচ্ছে। আরেকটি ব্যাপার হচ্ছে বর্তমানে শুধু যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের অধিবাসীরাই এই সুবিধা পাবে। বিজ্ঞাপন থেকে তাদের স্টাডি প্রোগ্রামে রেজিস্ট্রেশন করার পর তারা আপনাকে একটি লিঙ্ক পাঠাবে যার মাধ্যমে অ্যাপটি ইন্সটল করতে পারবেন।




অ্যাপটি দ্বারা অর্জিত টাকা উত্তোলনের জন্য আপনার অবশ্যই একটি পেপ্যাল একাউন্ট থাকা লাগবে। তবে কত টাকা দেবে তা নির্দিষ্ট বলেনি ফেসবুক।

ফেসবুক থেকে আয় এর এই এপ বাংলাদেশে কবে চালু হবে তা এখনও জানায়নি ফেসবুক। তবে ভারতে যেহেতু চালু হয়েছে তাই বাংলাদেশেও একদিন এটা আসবে সেই আশা করাই যেতে পারে।

অ্যাপটি গ্রাহকদের মন যুগিয়ে তার নিজের উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে কতটুকু সফল সফল হতে পারে সেটাই এখন দেখার বিষয়। এর আগে ওনাভো নামক ভিপিএন ও ডেটা সেভার অ্যাপ ব্যবহার করে ফেসবুক গ্রাহকদের ইউসেজ ডেটা সংগ্রহ করে সমালোচনার মুখে পড়েছিলো। দেখা যাক ফেসবুক স্টাডি কতটি ক্লাস পার করতে পারে।

Content: banglatech24

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Fill out this field
Fill out this field
Please enter a valid email address.
You need to agree with the terms to proceed

Menu